সমাজের আলো: ঔষধি গাছ নিশিন্দা যার শাখার ডগায় এক গোছা খুব ছোট আকারের ফুল। মূলত এটি ছোট আকারের বৃক্ষ অথবা একটি বড় ধরনের গুল্ম। লম্বা ৫-৭ মিটার, যা তিন থেকে পাঁচ ফলকবিশিষ্ট হয়ে থাকে। একেকটি পাতা ২-৩ সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা। ছোট আকারের বেগুনি রঙা ফুল। জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিশিন্দা গাছে ফুল ফুটতে দেখা যায়। এটি একটি কার্যকর ঔষধি গাছ। নিশিন্দা বাংলা নাম। নিশিন্দাকে সামালু, নিশিন্দে ও নিগুণ্ডী নামেও ডাকা হয়। সংস্কৃত নাম সিন্দুভার, ইন্দ্রাণী ও নীলা নির্গুণ্ডি। দেশের সর্বত্রই এই পত্রঝরা গুল্ম অথবা গাছটির দেখা পাওয়া যায়। তবে চট্টগ্রাম ও পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে একটু বেশিই এর দেখা মেলে। নিশিন্দা গাছের পাতা, ফুল, বীজ ও মূল ভেষজ ওষুধ হিসেবে ব্যবহার হয়ে থাকে। সব ধরনের চর্মরোগ, সর্দি, হাঁপানিসহ গলগণ্ড রোগে নিশিন্দা ব্যবহারে রোগ উপশম হতে দেখা যায়। এ ছাড়া জ্বর, বাতজ্বর, মাথায় টাকপড়া, আমাশয়, শরীরের মেদ, ঋতুস্রাব, মুখের ঘা, যকৃৎ এবং প্লীহার বৃদ্ধিতে নিশিন্দার ফুল, বীজ ও শিকড়ের বহুল ব্যবহার লক্ষণীয়। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে শিশুর কান্না থামানোর জন্য নিশিন্দার পাতা বেঁটে শরীর মালিশ করা হয়, কোথাও কোথাও পাতা সেদ্ধ করে সে পাতার পানি দিয়ে শিশুকে গোসল করানো হয়।



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *