সমাজের আলো:বাংলাদেশ-নেপাল ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধ্বের ৭৩ মিনিটে খেলা চলাকালীন নিরাপত্তা বেষ্টনি টপকে মাঠে ঢুকে পড়েন এক যুবক। বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার সঙ্গে সেলফি তোলেন তিনি। তবে দ্রুতই তাকে মাঠে থেকে বের করে নিয়ে যায় পুলিশ। এমন ঘটনা নিয়ে সময় সংবাদে পাল্টাপাল্টি মত দিয়েছেন বাফুফে সভাপতি এবং নির্বাহী কমিটির এক সদস্য। কাজী সালাহউদ্দিন বিষয়টিকে অনাকাঙ্ক্ষিত বলে এড়িয়ে যান। খেলা চলাকালীন মাঠে দর্শক প্রবেশের ঘটনা নতুন নয়। বাংলাদেশেও এমন ঘটনা দেখে গিয়েছে আগে। মিরপুর, সিলেট কিংবা চট্টগ্রামে ক্রিকেটারদের সঙ্গে সেলফি তুলতে নিরাপত্তা রক্ষীদের চোখ ফাঁকি দিয়ে মাঠে প্রবেশ করেছেন দর্শকরা। গেলো ফিফা বিশ্বকাপের ফাইনালেও একদল সমর্থক প্রবেশ করেছিলেন মাঠে। তবে তাদের উদ্দেশ্য ছিল ভিন্ন। এবার মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ-নেপাল দ্বিতীয় ম্যাচেও দেখা গেল এমন দৃশ্য। ম্যাচের তখন ৭৩ মিনিটের খেলা চলছে। একটা গোলের জন্য মরিয়া বাংলাদেশ ও নেপাল দল। এমন সময় নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকাদের চোখ এড়িয়ে এক দর্শক মাঠে চলে যান এক যুবক। বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার সাথে সেলফি তোলাই ছিল তার লক্ষ্য। তবে দ্রুতই ম্যাচ অফিশিয়ালরা এসে সরিয়ে নিয়ে যান সেই যুবককে। এমন ঘটনায় হুমকিতে পড়ে খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা। একে অনাকাঙ্ক্ষিত বলছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন। বাফুফের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন বলেন, ‘মস্কোতে রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালেও, মাঠে দর্শক ঢুকে পড়েছিল। ক্রীড়াঙ্গনে এমন ঘটনা নতুন নয়। তবে, আগামীতে যেন এমন ঘটনা আর না হয়, সেজন্য আমরা সতর্ক থাকবো।’




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *