মণিরামপুর (যশোর)প্রতিনিধি : খাবারের সাথে চেতনানাশক মিশিয়ে যশোর মণিরামপুরে সুব্রত দাস নামে এক কৃষকের বাড়ি লুট করা হয়েছে। শুক্রবার(২০ নভেম্বর)দিবাগত রাতে উপজেলার রোহিতা দক্ষিণ দাসপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। সুব্রত ওই গ্রামের মৃত শংকর দাসের ছেলে। সুব্রত দাস জানিয়েছেন, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাড়ি ফিরে দেখেন তার মা ঘরের মেইন গেট ও দরজা খুলে শুয়ে আছেন। তখন নিজে খাবার খেয়ে ঘুমাতে যান। খাবার খাওয়ার পরপরই তার বমি হয়। এরপর ঘুমঘুম ভাব হলে দরজা না লাগিয়ে তিনিও শুয়ে পড়েন। শনিবার (২১ নভেম্বর) সকাল ৭টার দিকে তার মা ঘুম থেকে জেগে দেখেন দরজা খোলা, ঘরের সব এলোমেলো। তখন তিনি সুব্রতকে ডেকে তোলেন। সুব্রত বলেছেন, দুর্বৃত্তরা সন্ধ্যারাতের কোনো একসময় ভাত-তরকারির সঙ্গে বিষাক্ত কিছু মিশিয়ে দিয়েছে। সেই খাবার খেয়ে আমি ও মা গভীরভাবে ঘুমিয়ে পড়ি। তখন তারা ঘরের আলমারি ও ট্রাঙ্ক খুলে ২২ হাজার টাকা, ৩২ ইঞ্চি একটি এলইডি টিভি,শাড়ি-কাপড় ও ৩টি ফোন সেট নিয়ে গিয়েছে। সুব্রতর মা তৃপ্তিরানী দাস বলেছেন, রাতে খাবার খাওয়ার পর থেকে শরীরটা দুর্বল লাগছিল। তখন শুয়ে পড়লে ঘুম এসে যায়। ছেলে ফেরার বিষয়টি টের পাইনি। সকালে উঠে দেখি ঘরের দরজা, বাক্স আলমারি সব খোলা। ঘরে কিছুই নেই। এখনো আমি ও সুব্রত অসুস্থ। স্থানীয় স্কুলশিক্ষক দেবাশীষ দাস বলেছেন, মণিরামপুরের পশ্চিম এলাকায় একের পর এক চুরি ডাকাতি ঘটেই যাচ্ছে। কোনো প্রতিকার মিলছে না। এই সব ঘটনায় আমরা আতঙ্কিত। মণিরামপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান বলেছেন, বিষয়টি জানা নেই। খোঁজ নিচ্ছি।।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *