সমাজের আলো : বসু ট্রেডার্সের শাহাপুর মোড়লপাড়া টু মহিষাডাঙ্গা সড়ক নির্মাণে সীমাহীন অনিয়ম-দুর্নীতি হলেও উপজেলা এলজিইডি কর্তৃপক্ষ নিরব ভূমিকায়। তালার খেশরা ইউনিয়নের শাহাপুর মোড়ল পাড়া থেকে মহিষাডাঙ্গা পর্যন্ত চার কিলোমিটার সড়ক নির্মানে সিমাহিন দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে তালার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বসু ট্রেডার্সের মালিক প্রভাবশালী ঠিকাদার কল্যান বসুর বিরুদ্ধে। এই সড়ক নির্মান কাজে ব্যাবহার হয়েছে একেবারে নিন্ম মানের আমা ইট ও খোয়া। সড়ক নির্মাণে এতটাই আমা ইটের খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে যে ভ্যান সাইকেল মোটর সাইকেলের চাকায় পিষ্ট হয়ে খোয়া ধুলায় পরিণত হয়েছে। হাত দিয়ে চাপ দিলে ভেঙে যাচ্ছে ব্যবহৃত ইটের খোয়া। সড়ক নির্মাণ কাজে সড়কের নিচে যে বালির স্তর দেয়া হয়েছে তার বেশিরভাগ অবৈধ ভাবে উত্তোলন করা হয়েছে পাপুড়িয়া নদী থেকে। বর্তমানে নির্মাণাধীন এই সড়কটির ইট ও খোয়ার কাজ কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। নির্মাণাধীন এই সড়কের সীমাহীন দুর্নীতি অনিয়ম সহ ঠিকাদার সড়কে ব্যবহৃত নিম্নমানের খোয়া ও খোয়ার গুড়া ঢাকতে দ্রুত উপরে ভালো মানের একটি পাতলা খোয়ার প্রলেপ সহ বালি ও পানি দিয়ে সবকিছু চাপা দেয়ার জোর ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছেন। বিষয়টি এলজিইডির তালা উপজেলা প্রোকৌশলিকে জানালে তিনি বিষয়টি দেখার জন্য গত ১৪ ই ফেব্রুয়ারি তালা উপজেলা এলজিইডির দায়িত্বরত ইন্জিনিয়ার কে সরেজমিনে পাঠান। ইন্জিনিয়ার রাস্তার কয়েক স্থানে স্থানীয় একজনের সহযোগিতায় নিচ পর্যন্ত খুড়ে দেখেন। এসময় ইঞ্জিনিয়ারের সামনে রাস্তার বিল এলাকার যেখানে খোড়া হয় সেখানেই একেবারে আমা ইটের খোয়া ও আমা ইটের গুড়া বের হতে থাকে। তবে খোয়ার চাইতে গুড়ার পরিমাণ অনেকাংশে বেশি পাওয়া যায়। আমা ইটের খোয়া ও আমা ইটের গুড়ার বিষয়ে ইঞ্জিনিয়ারকে ক্যামেরার সামনে বারবার মন্তব্য করতে বলা হলে তিনি ইটের খোয়া ও গুড়াকে ভালো বলতে পারেননি। তিনি আমা ইটের খোয়া ও ইটের গুড়ার বিষয়ে বলেন সব জায়গায় সমান হয়না ধান লাগালে কিছু চিটা হবে। এই ভিডিওটি তালা উপজেলা প্রকৌশলীর কাছে পাঠিয়ে এবিষয়ে মন্তব্য চাইলে আমাদের প্রতিবেদকের কয়েকদিনের চেষ্টা ব্যার্থ হয়। কয়েকদিন চেষ্টা চালিয়েও এলজিইডির তালা উপজেলা প্রকৌশলীর কাছ থেকে এবিষয়ে মন্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি। তিনি কোন মন্তব্য না করে ঠিকাদারকে দ্রুত ফিনিশিংয়ের কাজ শেষ করে দুর্নীতি চাপা দেয়ার সুযোগ করে দিচ্ছেন এমনটি সন্দেহ এলাকাবাসির। তালার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান বসু ট্রেডার্সের মালিক কল্যান বসু তালা উপজেলা ঠিকাদার কল্যান সমিতির সভাপতি হওয়ায় এবং টাকার জোরে দুই তিনজন সাংবাদিক ও জনপ্রতিনিধিকে নিজের পকেটস্থ করে রাখায় মিথ্যা মামলা সহ বিভিন্ন ঝামেলায় জড়িয়ে দেয়ার ভয়ে কেউ তার বিরুদ্ধে কথা বলতে সাহস পায়না। এছাড়াও তিনি যে এলাকায় কাজ পান প্রথমে সেই এলাকার জনপ্রতিনিধিদের টাকার জোরে নিজের পকেটস্থ করে নেন, যেন কেই তার কাজের দুর্নীতি অনিয়মের বিষয়ে প্রতিবাদ করতে সাহস না পায়। আর এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ঠিকাদার সড়ক নির্মাণে সীমাহীন দুর্নীতি অনিয়ম করে যাচ্ছেন। শাহাপুর টু মহিষাডাঙ্গা সড়কের নির্ধারিত নির্মাণ ব্যয়ের অর্ধেক টাকায় ঠিকাদার নির্মাণ কাজ শেষ করার চেষ্টা করছেন এমন অভিযোগও পাওয়া গেছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *