সমাজের আলো : অর্থপাচার রোধ ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তদারক-নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষা বিভাগ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগে গত এক যুগে কোন কোন কর্মকর্তা দায়িত্বে ছিলেন, তাদের নাম, পদবি, ঠিকানাসহ বিস্তারিত জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, ২০০৮ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের তিনটি বিভাগের কর্মকর্তারা কেন আর্থিক প্রতিষ্ঠান লুটপাট ও অর্থপাচারের বিষয়টি উদঘাটনে ব্যর্থ হলো সেটা আমাদের জানতে হবে। দায়িত্বে থেকে কাজ করবে না সেটা করার সুযোগ নাই। পি কে হালদারের বিরুদ্ধে করা মামলার তদন্তের অগ্রগতি জানার পর গতকাল বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দিয়েছেন। ২০০৮ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত অর্থপাচার রোধে সংশ্লিষ্ট বিভাগের এসব কর্মকর্তার ব্যর্থতা আছে কিনা, ব্যর্থ হয়ে থাকলে কেন হলেন, অর্থপাচারের বিষয়টি তারা টের পেয়েছিলেন কিনা, পেয়ে থাকলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন কিনা, তাদের ইন্ধন বা যোগসাজশে অর্থপাচার হয়েছে কিনা, তাও জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এসব তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে জানাতে বলা হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *