আতাউর রহমান : চলতি লকডাউনে প্রথম ৬ দিনে বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে ভারত থেকে আসা ১৫০০ বাংলাদেশি যাত্রীর মধ্যে ১৮ জনই করোনা আক্রান্ত। করোনা পজিটিভ যাত্রীদের পুলিশ প্রটেকশনে বেনাপোল চেকপোস্ট থেকে যশোর জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে বলে চিকিৎসকরা জানান। গত ৬ দিনে চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়ে দেশে ফিরেছে ১৫০০ বাংলাদেশি। করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট থাকা সত্যেও দেশে ফিরে আসা যাত্রীদের বেনাপোল ইমিগ্রেশনের স্বাস্থ্য বিভাগে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ১৮ জন যাত্রীর দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। ফলে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন এলাকাবাসীসহ দুই দেশের মধ্যে যাতায়াতকারী পাসপোর্টধারী যাত্রীরা। স্বাস্থ্যকর্মীরাও দিচ্ছেন সচেতনতার নানান পরামর্শ। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে একমাত্র বেনাপোল ও ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন দিয়ে স্থলপথে দুই দেশের মধ্যে পাসপোর্টধারী যাত্রী যাতায়াত সচল রয়েছে। ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞায় দেশের অন্যান্য স্থলপথে ইমিগ্রেশনের কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে ভারত ভ্রমণের ক্ষেত্রে গত বছরের জুলাইয়ের পর ইস্যুকৃত নতুন ভিসা আর ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আরটিপিসিআর থেকে করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ সনদ লাগছে। এ পথে যারা যাতায়াত করছেন তাদের ৯৫ শতাংশ মেডিকেল ভিসায়। ৫ শতাংশ বিজনেস, স্টুডেন্ট আর কূটনৈতিক ভিসায় যাতায়াত করছে। দুইবার করোনা পরীক্ষায় তিন হাজারেরও অধিক টাকা খরচে বেশ কষ্ট পোহাতে হচ্ছে তাদের। বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক সুবাশিষ রায় জানান, করোনা পজিটিভ যাত্রীদের পুলিশ প্রটেকশনে বেনাপোল চেকপোস্ট থেকে যশোর জেনারেল হাসপাতাল করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। তবে ভারত থেকে ফিরে আসা অধিকাংশ যাত্রীদের বেনাপোলের বিভিন্ন হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হচ্ছে। পরবর্তীতে তাদের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। চেকপোস্ট স্বাস্থ্য বিভাগে সতর্কতা জারি রয়েছে। লকডাউনে গত ৬ দিনে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ভারত থেকে ফিরে আসা ১৫০০ বাংলাদেশির যাত্রীর মধ্যে ১৮ জন করোনা আক্রান্ত। করোনা নেগেটিভ সনদ থাকা সত্যেও এমন ১০৬ জনের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে একজনের দেহে করোনা পজিটিভ মিলেছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *