সমাজের আলো : মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী ও বিদ্রোহীদের মধ্যে সংঘাতে অন্তত ৩০ জান্তা সেনা নিহত হয়েছেন। সোমবার (১১ অক্টোবর) সকালে সাগাইং অঞ্চলে সেনাবাহিনীর শুদ্ধি অভিযানে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।রেডিও ফ্রি এশিয়ার খবরে বলা হয়েছে, পেইল শহরতলির বাইরে ভূমিমাইন বিস্ফোরণের কবলে পড়ে একটি সামরিক বহর। এতে সামরিক বাহিনীর একজন কৌশলগত কমান্ডারসহ ৩০ সরকারি সেনা নিহত হয়েছে।

মিয়ানমারের পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের মুখপাত্র বোহ নাগার বলেন, রোববার থেকেই আমরা সামরিক বহরের অপেক্ষায় ছিলাম। একজন জ্যেষ্ঠ কমান্ডারও আসছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি।তিনি ২৩টি সামরিক যানের মাঝখানের একটি ছোট্ট গাড়িতে বসা ছিলেন জানিয়ে সামরিক মুখপাত্র বলেন, আমরা খুব ধৈর্য সহকারে অপেক্ষায় ছিলাম। তার মাথায় মারাত্মক আঘাত লেগেছিল। এখানে বিদ্রোহীরা মারাত্মকভাবে সক্রিয় রয়েছে। দুপক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী লড়াই হয়েছে।

গেল পহেলা ফেব্রুয়ারিতে জ্যেষ্ঠ জেনারেল অং হ্লাইংয়ের নেতৃত্বে সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে মিয়ানমারে অস্থিতিশীলতা চলছে। শান্তিতে নোবেলজয়ী অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন বেসামরিক সরকারকে উৎখাতের পর এক বছরের জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।অভ্যুত্থানের পর থেকেই দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশটিতে জান্তাবিরোধী ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। এতে এক হাজার ১৬৭ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। গ্রেপ্তার করা হয়েছে সাত হাজার ২১৯ জনকে।বিদ্রোহীদের সঙ্গে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর সংঘাতও ক্রমে বাড়ছে। কেবল গত মাসেই ১৩২টি সংঘাত হয়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *