সমাজের আলো: দেশে গত বছর করোনার প্রথম ধাক্কার ক্ষয়ক্ষতি এখনো সামলে উঠতে পারেননি সাধারণ মানুষ। এরই মধ্যে এ বছরও মহামারীর নতুন ঢেউ তাদের আরও অসহায় করে তুলেছে। তার ওপর সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে পরবর্তী ৭ দিনের জন্য সর্বাত্মক কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। এমন পরিস্থিতিতে আয় রোজগার নিয়ে অনিশ্চয়তায় পড়েছেন নিম্নআয়ের মানুষরা। সামনের দিনগুলোর কথা ভেবে এখন যেন চোখে অন্ধকার দেখছেন তারা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাপের দংশন থেকে বাঁচাতে নিম্নআয়ের মানুষকে বাঘের মুখে ফেললে হবে না। করোনা থেকে বাঁচাতে গিয়ে তাদের ক্ষুধায় মেরে ফেলা যাবে না। এ জন্য চাই করোনা মোকাবিলা ও সামাজিক নিরাপত্তা খাতে সরকারি বরাদ্দের সুষ্ঠু ব্যবহার। বিশ্লেষকরা বলছেন, নিম্নবিত্ত মানুষের জন্য এ সময়ে চলা খুব কঠিন হয়ে পড়বে। সরকারের পক্ষেও সবার জন্য খাদ্যের জোগান দেওয়ার কোনো ব্যবস্থা হয়েছে বলে কারও জানা নেই। এমন পরিস্থিতিতে লকডাউন কার্যকর করতে হলে দিনমজুর, বাসের হেলপার, হকারসহ খেটে খাওয়া মানুষদের জন্য সরকারকে সহায়তা দিতে হবে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *