সমাজের আলো : মুদি দোকানদার থেকে হঠাৎ করেই বনে গেলেন রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক, সঙ্গী হিসেবে আবার বেছে নিলেন এক চা দোকানিকে। এ মানবপাচারকারী চক্রের অপকর্মে সঙ্গ দিয়েছে বৈধ কিছু এজেন্সিও। চক্রের মূল হোতা টুটুলকে সাত সহযোগীসহ আটক করে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব বলছে, শিগগিরই ধরা পড়বে নেপথ্যের হোতারাও।কে না চায় একটু ভালোভাবে বাচতে? রংপুরের আসমাও ভেবেছিল দেশ ছেড়ে বিদেশে পাড়ি দিলেই বদলে যাবে জীবন। আর তাই তো দালালরূপী তৈয়বের ফাঁদে পা দিয়ে চলে যায় জর্ডান। সেখানে পৌঁছে একবার মাত্র যোগাযোগ হয় পরিবারের সঙ্গে। তারপর থেকেই নিখোঁজ হয় তিনি।

আসমার চাচা বলেন, তৈয়বকে বার বার বলা হয়েছে ভাই আসমার সঙ্গে আমাদের একটু কথা বলিয়ে দেন, যোগাযোগ করিয়ে দেন। কিন্তু তৈয়ব কোনো কর্ণপাত করেননি।শুধু এই একটি মানবপাচারকারী চক্রের হাতে প্রতারিত ভুক্তভোগীর সংখ্যা প্রায় শতাধিক। কেউ আবার সর্বস্ব বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা দিয়ে চার বছর ধরে অপেক্ষা করছেন দেশ ছাড়তে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *